রেসিপিঃ চিংড়ী শুঁটকী রান্না (হেভি ঝাল)

রেসিপিঃ চিংড়ী শুঁটকী রান্না (হেভি ঝাল) ,
– সাহাদাত উদরাজী স্যার ???

মাঝে মাঝে মুখের অবস্থা এমন হয় যে, আর কিছুই ভাল লাগে না। দামী খাবার দাবার দেখলেই পালিয়ে যেতে ইচ্ছা হয়। বিশেষ করে বয়স যখন ৫০ পেরিয়ে যায়! হা হা হা… কথা কিন্তু সত্য! ছোট বেলায় যে সকল তরু তরকারী দেখলে পালিয়ে যেতাম এখন মনে হয় সেই সব খেয়ে প্রান ভরাই! কত কি যে খেতাম না… পারলে ডেইলি বিবিয়ানী! আর এখন ডেইলি কেন, সাপ্তাহে যদি একদিনও বিরিয়ানী স্বাদে তাতেও মন চলে না! আসলে সবই দুনিয়ার খেলা! এখন মন চায়, এটা সেটা খেতে…।

তবে ছোট বেলা থেকে আমি শুঁটকী মাছ পছন্দ করি। নানান কায়দার রান্না করা শুঁটকী মাছ আছি খেয়েছি। আমার আম্মা শুঁটকী মাচা রান্না করে তুলে রাখতেন, কারন কেহ খেতে চাইত না, তিনি একাই খেতেন কিন্তু আমি তার কাছ থেকে চেয়ে খেতাম। আর সেই থেকে আমার পরানে শুঁটকীর জন্য একটা আলাদা মায়া আছে! বড় মাছ বা ছোট মাছ, যে কোন মাছের শুঁটকী আমার ভাল লাগে…

গত কয়েকদিন আগে রাতে মুখের অবস্থা ভাল যাচ্ছিলো না… সব কিছু কষ কষ লাগছিল। আমার ব্যাটারীকে জানালে তিনি বলেন, ঘরে কিছু চিংড়ী শুঁটকী আছে, চল ঝাল করে রান্না করি… গরম ভাতের সাথে ভাল হবে এবং মুখেও লাগবে। যেই কথা সেই কাজ! নেমে গেলাম… যদিও আমি ঝাল থেকে দূরে থাকতে চাই! (আমার ব্যাটারী প্রায়ই বোম্বাই মরিচ নিয়ে খেতে বসেন। আমি হাসি… বোম্বাই মরিচ ধরে খুটে খুটে খাবার কি স্টাইল! দিলে ভয় ডর নাই!)

উপকরণঃ
– চিংড়ি শুঁটকী (এক কাপ) অন্য যে কোন শুটকীও ব্যবহার করা যেতে পারে।
– দুই টেবিল চামচ রসুন বাটা
– এক টেবিল চামচ আদা বাটা
– হাফ কাপ পেঁয়াজ কুচি
– এক চা চামচ চামচ লাল মরিচ গুড়া (বুঝে শুনে)
– হাফ চা চামচ হলুদ গুড়া
– এক চিমটি গোল মরিচ গুড়া
– কয়েকটা কাঁচা মরিচ
– কিছু ধনিয়া পাতা
– পরিমাণ মত লবণ
– পরিমাণ মত তেল/পানি

প্রণালীঃ
১।শুঁটকী ভাল করে পানিতে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

২।কড়াইতে তেল গরম করে তাতে প্রথমে পেঁয়াজ কুচি হাল্কা ভেজে নিন এবং এই সময় সামান্য লবণ দিয়ে দিন। এর পর একে একে রসুন বাটা থেকে শুরু করে সব মশলা দিয়ে ভাল করে কষাতে থাকুন। কাঁচা মরিচ দিয়ে দিন। তেল যেন উপরে উঠে আসে। এর পর হাফ কাপ পানি দিয়ে দিন। ঝোল হয়ে যাবে।। নাড়াতে থাকুন।

৩।শুঁটকী মাছ দিয়ে দিন। এরপর শুধু কষানো। প্রয়োজনে আরো হাফ কাপ পানি দিতে পারেন।ভাল করে কষান। প্রয়োজনে ঢাকনা দিন।

৪।ফাইনাল লবণ দেখুন। লাগলে দিন, না লাগলে নাই। এবার আপনার ইচ্ছা ঝোল কমাবেন কতটুকু।

৫।ব্যস হয়ে গেল শুঁটকী রান্না। পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।

মাঝে মাঝে এমন ঝাল না হলে কি চলে! ঝাল টক মিষ্টি – এই তো আমাদের দুই দিনের জীবন!

#shutki_bazar_bangladesh
#dry_fish
www.shutkibazarbd.com

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading...
Cart Item Removed. Undo
  • No products in the cart.